Slideshows

http://www.bostonbanglanews.com/index.php/components/com_jcomments/libraries/joomlatune/components/com_gk3_photoslide/thumbs_big/605744Finding_Immigrant____SaKiL___0.jpg

কুইন্স ফ্যামিলি কোর্টে অভিবাসী

হাকিকুল ইসলাম খোকন/বাপ্‌স নিউজ/প্রবাসী নিউজ ঃ বষ্টনবাংলা নিউজ ঃ দ্যা ইন্টারফেইস সেন্টার অব নিউইয়র্ক ও আইনী সহায়তা সংগঠন নিউইয়র্ক এর উদ্যোগে গত ২৪ অক্টোবর বৃহস্পতিবার সকাল ৯ See details

ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার
ব্যানার

পরিচালনা পরিষদ 

সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি

ওসমান গনি
 

প্রধান সম্পাদক

হাকিকুল ইসলাম খোকন
 

সম্পাদক

সুহাস বড়ুয়া হাসু
 

সহযোগী সম্পাদক

আয়েশা আকতার রুবী

প্রবাসীদের খবর

চীনের “হেনান পলিটেকনিক বিশ্ববিদ্যালয়ের” শিক্ষার্থীদের বিজয় দিবস পালন

রবিবার, ১৭ ডিসেম্বর ২০১৭

Picture

ফজলে রাব্বি :বাপ্ নিউজ : চীনের মধ্যপ্রদেশে অবস্থিত “হেনান পলিটেকনিক বিশ্ববিদ্যালয়ে” বিজয় দিবস পালন করেছে বাংলাদেশী শিক্ষার্থীরা। দিবসটি উপলক্ষ্যে সকালে সিভিল ডিপার্টমেন্ট এবং কম্পিউটার ডিপার্টমেন্ট শিক্ষার্থীদের মাঝে এক প্রীতি ফুটবল ম্যাচের আয়োজন করা হয়।

alt

বিকেলে এক বর্ণাঢ্য র‍্যালীর আয়োজন করা হয়, র‍্যালিটি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন স্থান পরিদর্শন করে স্টেডিয়ামে এক সভায় মিলিত হয়। সেখানে জাতীয় সঙ্গীত গাওয়া এবং ১৯৭১ সালের শহীদদের স্মরণে ১ মিনিট নীরবতা পালন করা হয়।পরে ৪৭তম বিজয় দিবস উপলক্ষ্যে বিজয়ের কেক কাটা হয় এবং দেশ ও জাতির কল্যাণ কামনা করে মোনাজাত পরিচালনা করা হয়।

alt

উক্ত অনুষ্ঠানে বিশেষ সহযোগিতায় ছিলেন আরাফাত,হৃদয়,জাহিদ,ফজলে রাব্বি,বিশাল,রনক,পাভেল,শাকিল,রাছেল।সকল বাংলাদেশী শিক্ষার্থীদের ঐক্য,শৃংখলা,এবং সহযোগিতায় উক্ত অনুষ্ঠান সফলভাবে সমাপ্ত হয়।


কানাডায় একখণ্ড বাংলাদেশ

শনিবার, ১৬ ডিসেম্বর ২০১৭

বাপ্ নিউজ : কানাডা থেকে : কানাডা বিশ্বের শান্তিপ্রিয় একটি দেশ। বসবাস ও পড়াশোনার উপযুক্ত জায়গা। কানাডায় রয়েছে বিশ্বের নামীদামী সব বিশ্ববিদ্যালয়। শিক্ষার্থীদের কাছে উচ্চশিক্ষার প্রথম পছন্দ এটা। প্রতি বছর হাজারো শিক্ষার্থী বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ছুটে আসে এখানে পড়াশোনা করার জন্য। কানাডার খ্যাতনামা বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মাঝে অন্যতম একটি বিশ্ববিদ্যালয় ইউনিভার্সিটি অব অ্যাডওয়ার্ড আইল্যান্ড। এটি কানাডার চার্লেটাউনে অবস্থিত। বিভিন্ন দেশ থেকে পড়তে আসা শিক্ষার্থীদের মাঝে রয়েছে বাংলাদেশের শিক্ষার্থী। বিশ্ববিদ্যালয়টি প্রতি সেমিস্টারে পড়তে আসা ভিনদেশী শিক্ষার্থীদের নিয়ে এক বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠান আয়োজন করে থাকে। এ অনুষ্ঠানের মাধ্যমে ভিনদেশী শিক্ষার্থীরা নিজ দেশের ইতিহাস ঐতিহ্য সবার সামনে তুলে ধরে।

Picture

এ বিশ্ববিদ্যালয়টিতে রয়েছে বাংলাদেশের ২৩জন শিক্ষার্থী। এই অনুষ্ঠানের মাধ্যমে তারা বাংলাদেশের ইতিহাস ও ঐতিহ্যকে তুলে ধরেন বহির্বিশ্বে। প্রতিটি শিক্ষার্থী প্রবল আগ্রহ নিয়ে অংশগ্রহণ করে অনুষ্ঠানে। নাচে-গানে মাতিয়ে তুলে পুরো ক্যাম্পাস। অনুষ্ঠানটি মূলত উদযাপন করা হয় ইন্টারন্যাশনাল স্টুডেন্ট সেন্টারের পক্ষ থেকে। অনুষ্ঠানে সবাই নিজ দেশ সম্পর্কে গর্ব করার মতো কিছু ইতিহাস ও তার পাশাপাশি দেশীয় কৃষ্টি ও সংস্কৃতি তুলে ধরেন।

এই বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত একজন বাংলাদেশী শিক্ষার্থী জানায়, বিদেশীরা আমাদের দেশ সম্পর্কে অনেক অজানাকে জানতে পারে। এশিয়ার একটি দেশ হলেও তারা বাংলাদেশের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য এবং মানুষকে তাদের মাঝে পেয়ে খুবই আনন্দিত। অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ ছাড়াও জাপান, কেনিয়া, চায়না, ব্রাজিল ও সৌদি আরবের শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করেছে।


আবদুল মতিন খসরুকে ফ্রান্স আ.লীগের সংবর্ধনা

মঙ্গলবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০১৭

বাপ্ নিউজ : প্যারিস:শনিবার বিকালে প্যারিসের বাংলাদেশী অধ্যুষিত এলাকা গার দ্যু নর্দের একটি মিলনায়তনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সাবেক আইনমন্ত্রী আ্যডভোকেট আবদুল মতিন খসরুর সম্মানে এক সংবর্ধনার আয়োজন করে ফ্রান্স আওয়ামী লীগ ।

Picture

ফ্রান্স আওয়ামী লীগের সভাপতি এম এ কাশেমের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমানের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন সাবেক সভাপতি ও বর্তমান সিনিয়র সদস্য বেনজির আহমেদ সেলিম , সাবেক সভাপতি ও বর্তমান প্রধান উপদেষ্টা নাজিম উদ্দিন আহমেদ , সিনিয়র সহ-সভাপতি মোহাম্মদ আবুল কাশেম , রাজনৈতিক উপদেষ্টা ওয়াহিদ বার তাহের ও সামাজিক উপদেষ্টা মিজান চৌধুরী মিন্টু ও সাংগঠনিক সম্পাদক আলী হোসেন অন্যান্যের মধ্যে উপস্হিত ছিলেন সহ-সভাপতি সোহরাব মৃর্ধা , সৈয়দ ফয়সল ইকবাল হাসেমী , নাসির চৌধুরী , জাকির হোসেন ভূইয়া , আবু মোর্শেদ পাটোয়ারী , শুভ্রত শুভ ,সালেহ আহমেদ চৌধুরী , শাহজাহান শাহী , যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রানা চৌধুরী , নজরুল চৌধুরী ,এমদাদুল হক স্বপন ফয়সল উদ্দিন , সাংগঠনিক সম্পাদক খালেদ গোলাম কিবরিয়া , খালেকুজ্জামান , আলী আহমেদ জুবের , শ্রমিক লীগের সভাপতি সাগর খান , প্রচার সম্পাদক আমিন খাঁন হাজারী , দফতর সম্পাদক পারভেজ রশিদ খাঁন ,মানবাধিকার সম্পাদক আবদুল্লাহ আল তায়েফ , তথ্য ও গভেষনা সম্পাদক রবিউল হাসান , যোগাযোগ সম্পাদক হাসান আহমেদ , গান্ধী বিশ্বাস , আনোয়ার হোসেন , সিরাজ উদ্দিন প্রমুখ৷সংবর্ধিত অতিথি আবদুল মতিন খসরু বলেন , আমাদের নেত্রী নিজে শরনার্থী ছিলেন তাই তিনি প্রবাসীদের কষ্ট গুলো বিশেষ ভাবে উপলব্ধি করেন । প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সারা বিশ্বে বাংলাদেশ কে একটি বিশেষ মর্যাদায় নিয়ে গেছেন। আল্লাহর রহমতে তিনি বাঁচলে দেশ কে মালয়েশিয়া ও সিঙ্গাপুরের চেয়ে ও অন্যান্য উচ্চতায় নিয়ে যাবেন। অনুষ্ঠানে সদ্য প্রয়াত ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আনিসুল হকের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে দোয়া ও এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়।


বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ভাষণের স্বীকৃতি: নেদারল্যান্ডে আনন্দ শোভাযাত্রা

সোমবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০১৭

Picture

এরপর জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ১৯৭১ সালের ৭ই মার্চের ঐতিহাসিক ভাষণটির ভিডিও ক্লিপ প্রদর্শন করা হয়। আলোচনার শুরুতে, হল্যান্ড আওয়ামী-লীগের নেতাগণ এবং কমিউনিটির সদস্যগণ তাদের বক্তব্য পেশ করেন। বক্তব্যে তারা জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানান এবং কিভাবে বঙ্গবন্ধুর দূরদর্শী নেতৃত্বে বাঙালি জাতির সংগ্রাম ও আত্মত্যাগের মাধ্যমে মহান স্বাধীনতা অর্জিত হয়েছিল তা তুলে ধরেন। তারা বিশ্ববাসীর কাছে আরো ব্যাপক ভাবে পৌঁছে দেওয়ার জন্য সরকারের কাছে ৭ই মার্চের ঐতিহাসিক ভাষণটি বিভিন্ন ভাষায় অনুবাদ ও প্রকাশনার অনুরোধ জানান।

alt

বক্তব্যে নেদারল্যান্ডে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত শেখ মুহম্মদ বেলাল বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধে ঐতিহাসিক ৭ই মার্চের ভাষণকে মহাকাব্য হিসেবে অভিহিত করে এর তাৎপর্য তুলে ধরেন। রাষ্ট্রদূত আরো বলেন, UNESCO কর্তৃক প্রদত্ত এ স্বীকৃতি বিশ্ব দরবাররে আমাদের গোটা জাতিকে এক নতুন উচ্চতায় আসীন করেছে । UNESCO কর্তৃক প্রদত্ত এ স্বীকৃতিকে জাতীয় গৌরব ও বাঙালী জাতির এক নতুন পরিচয় হিসেবে আখ্যায়িত করে রাষ্ট্রদূত প্রবাসী বাংলাদেশীদের বাংলাদেশের চলমান উন্নয়নের অগ্রযাত্রায় আরো সক্রিয়ভাবে অবদান রাখার আহ্বান জানান।

alt

সম্প্রতি ঢাকায় অনুষ্ঠিত দূত সম্মেলনের সূত্র ধরে রাষ্ট্রদূত উপস্থিত বাংলাদেশ কমিউনিটিকে অবহিত করেন যে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ভূমি পুনরুদ্ধার তথা ল্যান্ড রিক্লেমেশন এবং গ্রীন হাউজ টেকনোলজির মাধ্যমে কৃষি উৎপাদন বৃদ্ধির ক্ষেত্রে নেদারল্যান্ডের সাথে সহযোগিতা বৃদ্ধির বিষয়ে দিক নির্দেশনা প্রদান করেছেন। রাষ্ট্রদূত আরো উল্লেখ করেন, আন্তর্জাতিক অঙ্গনে বাংলাদেশের উজ্জ্বল অবস্থান ও অর্জিত সুনামের জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও বাংলাদেশ দূতাবাস সমূহের ভুয়সী প্রশংসা করেছেন। পরে ৭ই মার্চের ঐতিহাসিক ভাষণটি UNESCO কর্তৃক স্বীকৃতি লাভ উপলক্ষে হিমেল শীতকে উপেক্ষা করে প্রবাসী বাংলাদেশীগণ এবং দূতাবাসের কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দদের আনন্দমুখর অংশগ্রহণে একটি আনন্দ শোভাযাত্রা দি হেগের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে।


রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারে ফিরিয়ে নিতে ইউরোপিয়ান কামিশনে সমাবেশ

বৃহস্পতিবার, ৩০ নভেম্বর ২০১৭

Picture

স্থানীয় সময় বুধবার"এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ কমিউনিটি বেলজিয়াম(ABCB)"- র উদ্দ্যেগে ইউরোপিয়ানকমিশনের সামনে এ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।  সমাবেশে রোহিঙ্গাদের ওপর নির্যাতন বন্ধ, তাদের নাগরিকত্ব প্রদান, যাবতীয় ক্ষতিপূরণ, সকল নাগরিক অধিকারসহ তাদের স্বদেশে ফিরিয়ে নেওয়ার দাবি জানানো হয়।

alt

এ সময় উপস্থিত ছিলেন বরগুনা-২ আসনের সংসদ সদস্য শওকত হাচানুর রহমান রিমন, বেলজিয়াম আওয়ামী লীগের সভাপতি সহিদুল হক (সহিদ), স্থানীয় কাউন্সিলর মোতাহের হোসেন চৌধুরী, ইপিবিএ কেন্দ্রীয় সহ সভাপতি মোতালেব খান, ফ্রেন্ডস অফ বাংলাদেশের সভানেত্রী রত্না খান, সহ-সভাপতি সাজিদ কাদেরী ও যুগ্ম সম্পাদক তাসিন হোসাইন।

alt

এছাড়া আরও উপস্থিত ছিলেন এবিসিবি’র এম এম মোর্শেদ, বেলজিয়াম আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক আখতারুজ্জামান, দপ্তর সম্পাদক নূরে আলম ছিদ্দিকী, ব্রাসেলস কেন্দ্রীয় বাঙালি মসজিদের খতিব সৈয়দ মোদাচ্ছের ও বঙ্গবন্ধু পরিষদ বেলজিয়ামের সভাপতি ফিরোজ আহমেদ বাবুল।

alt

উপস্থিত ছিলেন অল ইউরোপ বাংলা প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আবু তাহির, সহ সভাপতি রিয়াজ হোসেন, আয়োজক সংগঠনের সাংস্কৃতিক সম্পাদক ও বেলজিয়াম আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি বাবু নিরঞ্জন রয় ও সামাজিক সংগঠন হ্যান্ড টু হ্যান্ড-এর গোলাম জিলানী জুয়েল। রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানের দাবিতে রোডমার্চ করে ফ্রান্স থেকে এসে এ মানববন্ধন কর্মসূচিতে যোগ দেয় ইউরোপ প্রবাসী বাংলাদেশিদের সংগঠন ইপিবিএ-এর নেতাকর্মীরা।


ব্রিটেনে বাংলাদেশি কিশোরীর চমক!

বুধবার, ২৯ নভেম্বর ২০১৭

বাপ্ নিউজ : ১৯৯০ এর দশকে বাবা-মা বাংলাদেশ থেকে আসেন যুক্তরাজ্যে। বাড়িতে সবসময় বলা হয় বাংলা। সবার সামনে দাঁড়িয়ে কথা বলাতেও স্কুল পড়ুয়া মেয়েটির ভয়। অথচ এই মেয়েটিই কিনা ব্রিটেনের নামীদামী সব স্কুলের শিক্ষার্থীদের পিছনে ফেলে জিতে নিয়েছে বিতর্ক প্রতিযোগিতার সেরার পুরস্কার! সেলিনা বেগম নামের ১৬ বছর বয়সী এই মেয়েটির সাফল্যের খবর জানিয়েছে ডেইলি মেইল। এ লেভেল পড়ুয়া মেয়েটি ইটন কলেজের জাফর হলে অনুষ্ঠিত বিতর্ক প্রতিযোগিতায় ফাইনালে উঠে পুরস্কার ছিনিয়ে নেয়।

Picture

দুই শতাধিক শিক্ষার্থীকে পিছনে ফেলে ইটন কলেজের শরতকালীন আমন্ত্রিত উন্মুক্ত বিতর্ক প্রতিযোগিতার ফাইনালে উঠে যায় সেলিনা। নভেম্বরের শুরুতে অনুষি্ঠত এই প্রতিযোগিতার ছয় ফাইনালিস্টের একজন সে। সেলিনা ডেইলি মেইলকে বলেন, ‘সবার দৃষ্টি আমার ওপর ছিলো। কথা বলতে গিয়ে মনে হলো আমার গলা কাঁপছে। ভয় পাচ্ছিলাম খুব, কিন্তু বড় করে শ্বাস নিয়ে আমার মতো করে শুরু করলাম। মানুষের চোখ খুঁজে নিয়ে তাদেরকে সম্পৃক্ত করেই আমার যুক্তি তুলে ধরছিলাম।’

বিতর্কের ডায়াসে সেলিনা বেগম। সংগৃহীত ছবি
বিতর্কের ডায়াসে সেলিনা বেগম। সংগৃহীত ছবি

সেলিনা ওই প্রতিযোগিতায় যুক্তরাষ্ট্রের মৃত্যুদণ্ড বন্ধ করার পক্ষে যুক্তি তুলে ধরেছিলেন।

‘যখন শেষ করলাম ভাবিনি আবার আমাকে দাঁড়াতে হবে। কেননা এখানে যারা ছিলেন তারা প্রত্যেকেই ছিলেন মেধাবী। যার বক্তৃতা শুনছিলাম মনে হচ্ছিল সেই জিতে যাবে। তারা প্রায় সবাই একরকম ভাবেই বলছিলো,’ বলছিলেন সেলিনা।  

সেলিনা বলেন, ‘বিজয়ীদের নাম ঘোষণার সময় আমি হাত তালি দিচ্ছিলাম নিজের নাম বলা হয়েছে খেয়ালিই করিনি। পাশে বসে থাকা এক শিক্ষক ধাক্কা দিয়ে বললেন, তুমিই জিতেছো। আর আমি বললাম ওয়াও।’
আর আজ পূর্ব লন্ডনের নিউহ্যামে যেখানেই সেলিনার কথা উচ্চারিত হচ্ছে সেখানেই বলা হচ্ছে ওয়াও। যুক্তরাজ্যে বাবা-মা ছাড়াও তাদের সঙ্গে বাস করেন, ১৪ বছর বয়সী ছোট ভাই আর দাদী।
লন্ডনের দরিদ্র এলাকায় বাস করা অভিবাসী পরিবারের সেলিনা স্বপ্ন দেখেন অক্সফোর্ড বি্বিবিদ্যালয়ে ইতিহাস নিয়ে পড়ার। কাজ করতে চান আইনপেশায়।

িআরও ছোট বয়সে ভাইয়ের সঙ্গে সেলিনা। সংগৃহীত ছবি

আরও ছোট বয়সে ভাইয়ের সঙ্গে সেলিনা। সংগৃহীত ছবি

ওয়েস্টমিনিস্টার ও উইনচেস্টারের নামীদামী স্কুলের শিক্ষার্থীদের পেছনে ফেলে জিতে আসা সেলিনা এই বিজয়ের কৃতিত্ব দিতে চান স্কুলের ডিবেটিং সোসাইটির শিক্ষকদের।

বাংলাদেশের পূর্বাঞ্চলীয় সিলেট থেকে আসা বাবা-মায়ের সন্তান সেলিনা। সন্তানদের ভবিষ্যতের স্বপ্ন দেখা ছাড়া তাদের আর কিছুই অবশিষ্ট নেই। সেলিনার মায়ের সময় কাটে তার অসুস্থ বাবার দেখাশোনা করে। লাঠি ছাড়া হাঁটেতে পারেন না তার বাবা।


মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশ প্রদর্শনী

বুধবার, ২৯ নভেম্বর ২০১৭

বাপ্ নিউজ : মালয়েশিয়ার মুতিয়ারা ইন্টারন্যাশনাল গ্রামার স্কুলে বাংলাদেশ এবং বাংলাদেশি পণ্যের প্রদর্শনী শুরু হয়েছে। মঙ্গলবার দিনব্যাপী চলবে এ প্রদর্শনী।প্রদর্শনীতে বাংলাদেশের মানুষ, নগর, রাজধানী, পরিবেশ, আবহাওয়া ও জলবায়ু, প্রকৃতি, পোশাক, খাবার, সংস্কৃতি, পণ্য সম্পর্কে স্কুলের শিক্ষার্থীদের ধারণা দেয়া হয়। প্রদর্শনীতে বাংলাদেশ, ভারত, শ্রীলংকা, নেপাল, ভুটান ও মালদ্বীপসহ বিভিন্ন দেশের ক্ষুদে শিক্ষার্থীরা অংশ নেয়।

Picture

মেলায় আগত অভিভাবক, দর্শনার্থী ও শিক্ষার্থীদের মাঝে বাংলাদেশ সম্পর্কে বিভিন্ন তথ্য তুলে ধরা হয়। এ সময় বাংলাদেশের কৃষ্টি-কালচার নিয়ে অভিভাবক, দর্শনার্থী ও শিক্ষার্থীদের নির্ধারিত প্রশ্নের উত্তর দেন মিসেস দিলরুবা আক্তার, দিল আফরোজ নাহার ডলি এবং মিসেস লাকি আক্তার।এ ছাড়া প্রদর্শনীতে দেশীয় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও ফ্যাশন শো আয়োজন করা হয়। দিনব্যাপী এ প্রদর্শনী পরিদর্শন করেন বাংলাদেশ হাইকমিশনের মিনিস্টার রইস হাসান সারোয়ার এবং প্রথম সচিব (শ্রম) মো. হেদায়েতুল ইসলাম মন্ডল।উল্লেখ্য, মালয়েশিয়ার মুতিয়ারা ইন্টারন্যাশনাল গ্রামার স্কুল কর্তৃপক্ষ প্রতিবছরই এ প্রদর্শনীর আয়োজন করে।


১৮ বছর বয়সে ব্রিটেনের কাউন্সিলর হলেন বাংলাদেশি শরিফাহ

সোমবার, ২৭ নভেম্বর ২০১৭

Picture

তার এ বিজয়ে উৎফুল্ল সেখানকার বাঙালি কমিউনিটির লোকজন।শরিফাহ’র পৈত্রিক বাড়ি সুনামগঞ্জের বরমরা গ্রামে। জীবিকার তাগিদে বাবা লোকমান খান ব্রিটেনে পাড়ি জমিয়ে ছিলেন অনেক  আগেই। শরিফাহ’র জন্মও ব্রিটেনের ডালিংটন শহরে। বেড়ে ওঠাও সেখানে। সাত ভাইবোনের মধ্যে শরিফাহ সবার ছোট।

alt

৪৪ দশমিক ৮ শতাংশ ভোট পেয়ে রেড হল এবং লিংফিলড ওয়ার্ড নির্বাচিত হন তিনি। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী টোরি পার্টির জোনাথন ডালস্টন। অন্য প্রতিদ্বন্দ্বীরা হলেন- লিবারেল ডেমোক্রেটস দলের হ্যারি লংমুর (১১ ভোট), গ্রিন পার্টির মাইকেল ম্যাকটিমনি (২০ ভোট) এবং সাবেক ইউকিপ কর্মী স্বতন্ত্র প্রার্থী কেভিন ব্রা পেয়েছেন (৪৬ ভোট)।

alt

নির্বাচনে বিজয়ী হওয়ার পর সবচেয়ে কমবয়সী এই কাউন্সিলরকে অভিনন্দন জানিয়েছেন স্থানীয় এমপি জেনি চাপম্যান ও এন্ড্রু গাইন। ব্রিটেনে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত প্রথম এমপি রোশনারা আলীর অভিনন্দন ও  প্রশংসায়ও ভেসেছেন শরিফাহ।মাত্র কয়েক মাস আগে শরিফাহ রহমান ‘এ’ লেভেল পরীক্ষায় ঈর্ষণীয় সাফল্য দেখিয়ে উর্ত্তীণ হন। এই সাফল্যের কয়েক মাসের মধ্যেই তিনি নির্বাচনে বিজয়ী হয়ে আরেক চমক দেখালেন।


রিয়াদে ৭ই মার্চের ঐতিহাসিক ভাষণ ঐতিহ্যের স্বীকৃতি পাওয়ায় আনন্দ শোভাযাত্রা ও আলোচনা সভা

সোমবার, ২৭ নভেম্বর ২০১৭

বাপ্ নিউজ : সৌদি আরব : জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সাতই মার্চের ঐতিহাসিক ভাষণ জাতিসংঘের ইউনেস্কোর বিশ্ব প্রামাণ্য ঐতিহ্যের স্বীকৃতি পাওয়ায় সৌদি আরবের রিয়াদে বাংলাদেশ দূতাবাসের উদ্যোগে আজ আনন্দ শোভাযাত্রা ও আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।এ উপলক্ষে আয়োজিত সভায় স্থানীয় বাংলাদেশী কমিউনিটি নেতৃবৃন্দ, পেশাজীবী, শিক্ষক, চিকিৎসক, সাংবাদিক সহ বিপুল সংখ্যক প্রবাসী বাংলাদেশী অনুষ্ঠানে যোগদান করেন। অনুষ্ঠানের শুরুতে চার্জ দ্যা অ্যাফেয়ার্স ডঃ মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম দূতাবাস প্রাঙ্গণে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন।

Picture

এ সময় দূতাবাসের কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।আলোচনা সভায় ডঃ নজরুল ইসলাম বলেন, বঙ্গবন্ধুর সাতই মার্চের ভাষণ বাঙ্গালী জাতিকে স্বাধীনতা ও মুক্তির সংগ্রামে ঝাঁপিয়ে পড়ার জন্য ঐক্যবদ্ধ করেছিল। এই ভাষণ যুগ যুগ ধরে বাঙ্গালী জাতিকে সমানভাবে উজ্জীবিত করে যাবে। তিনি নতুন প্রজন্মের কাছে এই ভাষণ ব্যাপকভাবে তুলে ধরার আহবান জানান। তিনি এসময় সাতই মার্চের ভাষণ কিভাবে বিশ্ব ঐতিহ্যের Memory of the World International Register এ অন্তর্ভুক্ত হল তার বিস্তারিত তুলে ধরেন।চার্জ দ্যা অ্যাফেয়ার্স ডঃ নজরুল ইসলাম বলেন, বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ার লক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ দূর্বার গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে। তাই আজ পদ্মা সেতুর মত বিশাল বাজেটের কাজ আমাদের নিজস্ব অর্থায়নে করা সম্ভব হচ্ছে। তিনি প্রবাসীদের যার যার জায়গা থেকে দেশের জন্য কাজ করে যাওয়ার আহবান জানান।

alt

আলোচনা সভায় প্রবাসী বাংলাদেশীরা সাতই মার্চের ভাষণকে বাঙালি জাতির মুক্তির সনদ বলে উল্লেখ করেন। এ ভাষণ ইউনেস্কোর স্বীকৃত লাভ করায় তা জাতির জন্য অত্যন্ত আনন্দের বিষয় বলে জানান। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর সাতই মার্চের ভাষণ আরবি ভাষায় অনুবাদ করে মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতে প্রচারের উদ্যোগ নেয়ার দাবী জানান প্রবাসীরা।আলোচনা সভার শুরুতে বঙ্গবন্ধুর সাতই মার্চের ভাষণ প্রদর্শন করা হয়। এছাড়া দূতাবাস প্রাঙ্গনে প্রবাসী বাংলাদেশী ও দূতাবাসের সকল কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে আনন্দ শোভাযাত্রার আয়োজন করা হয়। আলোচনা সভা শেষে জাতির পিতা ও তাঁর পরিবারবর্গের জন্য মোনাজাত ও দোয়া করা হয়।


উত্তরবঙ্গের নারীদের পাশে দাঁড়ালো জাপান প্রবাসী বাংলাদেশী নারীরা

শুক্রবার, ২৪ নভেম্বর ২০১৭

বাপ্ নিউজ : জাপান প্রবাসী বাংলাদেশি নারীরা টোকিওতে গত সপ্তাহে প্রথমবারের মতো চ্যারিটি বাজার আয়োজন করে তা থেকে বিক্রিজাত অর্থের পুরোটাই কুড়িগ্রামের বিপন্ন নারীদের হাতে তুলে দিয়েছে।বাংলাদেশ উইমেনস অ্যাসোসিয়েশন জাপান (বিডবিøউএজে, বোয়াজ) এর ব্যানারে টোকিওর কিতা সিটির উকিম ফুরেআইকানে গত শনিবার সাপ্তাহিক ছুটির দিনের এ আয়োজনে বিপুল দর্শনার্থীর সমাগত ঘটে।

Picture

বিভিন্ন স্টল সাজিয়ে সেখানে নিজেদের হাতে তৈরি বাংলাদেশি পিঠা, মিষ্টান্ন ও হরেক রকম মুখরোচক খাবারদাবারসহ এবং গহনা, বুটিক এবং বইসহ অন্যান্য পণ্যসামগ্রী তুলে ধরেন সমিতির সদস্যরা। দাতব্য বাজার আয়োজনের মহতী উদ্দেশ্য একটাই, বন্যাসহ নানাবিধ দুর্যোগে বিপন্ন বাংলাদেশের বিপন্ন নারীর পাশে দাঁড়ানো, তার দিকে আশ্বাসের হাত বাড়িয়ে দেয়া।শুধু নারীদের উদ্যোগে প্রথমবারের মতো এ চ্যারিটি বাজারের সাফল্য অভ‚তপূর্ব সাড়া তৈরি করেছে ইতোমধ্যে। জাপানের গণমাধ্যমেও ফলাও প্রচার হয়েছে তার। অনলাইন ভিত্তিক শপিং উদ্যোক্তার পাশাপাশি ১৭টি স্টল এতে অংশগ্রহণ করে। বাজারটি সন্ধ্যা ৮টায় শেষ হওয়ার কথা থাকলেও উৎসাহী ক্রেতার আগ্রহে বহু আগেই শেষ হয়ে যায় স্টলের সাজানো সামগ্রী। বিক্রি থেকে আয়ের পুরো অর্থের চেক তুলে দেয়া হয় সভানেত্রীর হাতে। বাংলাদেশের কুড়িগ্রামে বন্যাকবলিত দুঃস্থ নারীদের পুনর্বাসনে ব্যয় হচ্ছে এ টাকা।
alt
নারী সমিতির প্রধান উপদেষ্টা জাপানে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত রাবাব ফাতিমার প্রতিনিধি দূতাবাসের অর্থনৈতিক মন্ত্রী ড. সাহিদা আকতার ছিলেন এর প্রধান অতিথি। আয়োজনের সাফল্যে প্রবাসী নারীদের অভিনন্দন জানিয়ে তিনি বলেন, নারীর ক্ষমতায়ন হচ্ছে। তাদের অবদানে উন্নয়নের মহাসড়কে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ। নারী পারে না এমন কোনো কাজ নেই। বিদেশের মাটিতে বাংলাদেশি নারীদের এ আয়োজন তারই অনন্য নিদর্শন।আয়োজনের শুরুতে অনুষ্ঠানে বোয়াজের কার্যকরী পর্ষদের নাম ঘোষণা হয়। এতে সমিতির সভানেত্রী হিসেবে জেসমিন সুলতানা কাকলি, সাধারণ সম্পাদক হিসেবে সুবর্ণ নন্দী রিমা, কোষাধ্যক্ষ হিসেবে সালমা আক্তার লাকি এবং দপ্তর সম্পাদক হিসেবে রোকেয়া পারভিন তানিয়ার নাম ঘোষণা করা হয়। এছাড়া সমিতির প্রধান উপদেষ্টা হিসেবে রাষ্ট্রদূত রাবাব ফাতিমা এবং উপদেষ্টা হিসেবে সাহিদা আকতারের নাম ঘোষণা হয়। সদস্যরা অঙ্গীকার করেন, জাপানে বাংলাদেশের সুনাম বাড়াতে সচেষ্ট থাকবেন। দেশের দুঃস্থ নারীদের ভাগ্য উন্নয়নের কাজ করে যাবেন। সবশেষে আনন্দঘন পরিবেশে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে অংশ নেয় স্বরলিপি কালচারাল একাডেমির সদস্যরা।
 alt
প্রাণের দেশ ছেড়ে যাওয়া এসব নারীর কেউ দুবছর আবার কেউ দশ বছরের বেশি পেশাগত কিংবা নানা কারণে জাপানে বসবাস করছেন। কিন্তু তাদের বুকের মধ্যে সারাক্ষণ গান গাইতে থাকে ফেলে আসা সবুজ দেশ, মমতামাখানো নাড়ির টান। অনেক ভালোবাসার সেই দেশ, দেশটার সরল মনের মানুষগুলোর পাশে দাঁড়ানোর প্রত্যয় থেকেই এবার একজোট হয়েছে জাপান প্রবাসী বাংলাদেশের নারীরাও।এছাড়া দেশের শীতার্ত মানুষের হাতে গরম কাপড় তুলে দেয়ার লক্ষ্যে সমিতির পরবর্তী কর্মসূচি শুরু হচ্ছে শিগগিরই।


আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসকে স্বীকৃতি দিল সিটি অব অটোয়া

শনিবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৭

Picture

সকল মাতৃভাষার মর্যাদা রক্ষা ও সংরক্ষণ এর দাবিতে কানাডার রাজধানী শহর অটোয়ায় এডভোকেসি কার্যক্রম শুরু করেছিল স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন বাংলা কারাভান এবং প্রোএকটিভ এডুকেশান ফর অল চিলড্রেন এনরিচমেন্ট । এই মুভমেন্ট এর অংশ হিসেবে মেয়রের কাছে বেশ কয়েকটি দাবি জানায় সংগঠনটি। তারই প্রেক্ষিতে সিটি অব অটোয়া এই সিদ্ধান্ত নেয় ।

alt

আনুষ্ঠানে অটোয়ার সিটি মেয়র জিম ওয়াটসন, বাংলাদেশ হাই কমিশনার মিজানুর রহমান, উনেস্কো ডি জি সেবাসটিন প্রমুখ সহ বিভিন্ন কমুনিটির শতাধিক লোক উপস্তিত ছিলেন ! উত্থাপিত দাবিগুলোর মধ্যে ছিল সিটির বাৎসরিক কার্য তালিকায় দিবস টি সংযুক্ত করা, আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদযাপনের র লক্ষ্যে শহরে স্মৃতিসৌধ স্থাপন, স্বীকৃতি প্রদান এবং সকল মাতৃভাষা সংরক্ষণের লক্ষ্যে সকল গ্রন্থাগারে IMLD কর্নার প্রতিষ্ঠা করা।